Homeজাতীয়ভারতীয় তরুণীর হারানো আইফোন উদ্ধার করল চট্টগ্রাম ডিবি

ভারতীয় তরুণীর হারানো আইফোন উদ্ধার করল চট্টগ্রাম ডিবি

ভারতীয় তরুণীর হারিয়ে যাওয়া একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালি থানা এলাকা থেকে। গত ৬ জুন থানার রিয়াজউদ্দিন বাজারের জলসা মার্কেট থেকে মোবাইলটি উদ্ধার করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি)। এরপর আইনিপ্রক্রিয়া মেনে রোববার (৭ জুলাই) ভারতের কলকাতায় মোবাইলটি পৌঁছে দেয় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)।

রোববার (৭ জুলাই) দিবাগত রাতে সিএমপির একটি সূত্র ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আইফোন ১৪ প্লাস মোবাইলটির মালিক পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার বাসিন্দা দীপান্বিতা সরকার। তিনি একটি মেডিকেলে স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। গত ২৪ এপ্রিল সন্ধ্যা পৌনে ৬টা থেকে ৭টা ৫ মিনিটের মধ্যে কলকাতার মহেশতলা থানার এলাকায় তিনি মোবাইলটি হারিয়ে ফেলেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী দীপান্বিতা মহেশতলা থানায় একটি অভিযোগ করেন।

কিছুদিন পরে দীপান্বিতার কাছে একটি ই-মেইল যায়। এতে তিনি জানতে পারেন হারানো মোবাইলটি চট্টগ্রাম শহরে চালু হয়েছে। তখন তিনি সিএমপির অফিসিয়াল পেজে যোগাযোগ করে তার অভিযোগের কপি ও মোবাইল চালু হওয়ার লোকেশন পাঠান। ম্যাসেজ পেয়ে সিএমপির পক্ষ তাকে আশ্বস্ত করা হয় মোবাইলটি উদ্ধারে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সিএমপি জানায়, হারানো মোবাইল উদ্ধার করতে দায়িত্ব দেওয়া হয় নগর ডিবির বন্দর ও পশ্চিম জোনকে। এ জোনের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রবিউল ইসলাম ঘটনাটির তদন্ত শুরু করেন।

এসআই মো. রবিউল ইসলাম বলেন, মোবাইলটিতে কোনো সিম ঢুকানো হয়নি। তাই ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে তদন্ত শুরু করা হয়। যেহেতু মোবাইলের লোকেশন রিয়াজউদ্দিন বাজারের জলসা মার্কেটে দেখানো হয়েছে, সেটিকে সূত্র ধরে তদন্ত শুরু করি। প্রথমে রিয়াজউদ্দিন বাজারে কারা ভারত থেকে চোরাই মোবাইল আনে তার খোঁজ নিয়ে তালিকা প্রস্তুতি করি। এ তালিকায় চারজনের নাম পাওয়া যায়। এর মধ্যে তিনজনই তামাকুমুন্ডি লেন এলাকার। বাকি একজন হলেন জলসা মার্কেটের। এ কাজে আমার ৭-৮ দিন সময় লাগল।

তিনি আরও বলেন, শনাক্ত হওয়ার পর আমরা জলসা মার্কেটে টার্গেট করা দোকানে অভিযানের প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। বিষয়টি টের পেয়ে অভিযুক্ত দোকানমালিক ফোনটি একজন ব্যবসায়ীর মাধ্যমে আমাদের কাছে হস্তান্তর করে। গত ৬ জুন মোবাইলটি আমরা পাই। এরপর থেকে জলসা মার্কেটের ওই দোকানটি বন্ধ রয়েছে। আমরা শিগগিরই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করব। এছাড়াও রিয়াজউদ্দিন বাজারে চোরাই মোবাইলের মার্কেটে বড় অভিযান পরিচালনা করা হবে।

এসআই রবিউল বলেন, একমাস আগে উদ্ধার হলেও ভারতীয় নীতিমালার কারণে কোনো মাধ্যমে মোবাইলটি ওই দেশে পাঠানো সম্ভব হচ্ছিল না। কারণ ভারতে ব্যবহৃত মোবাইল পাঠানোর নিয়ম নেই। একপর্যায়ে গত রোববার আমাদের বিশ্বস্ত এক লোকের মাধ্যমে মোবাইলটি ওই তরুণীর কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। হারানো মোবাইল অবিশ্বাস্যভাবে ফিরে পেয়ে তিনি ভীষণ খুশি হয়েছেন এবং পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) কাজী মো. তারেক আজিজ বলেন, সিএমপির পেজে মেসেজ পেয়ে আমরা বিষয়টি নিয়ে তৎপর হই। এ ঘটনায় ডিবির একটি টিম অভিযান পরিচালনা করে মোবাইলটি উদ্ধার করেছে। রোববার ভারতীয় নাগরিকের হাতে মোবাইলটি পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

সম্পর্কিত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আরও পড়ুন